ঘোষণা:
আমাদের ওয়েবসাইটে স্বাগতম...

গাইবান্ধা ব্রীজরোড মিস্ত্রিপাড়ায় সরকার কর্তৃক ১৮ টাকা কেজি দরে আটা বিতরনকালে মাস্তান রবিন কর্তৃক হস্তক্ষেপ রবিউল ইসলাম বাধা দিতে গেলে বেধরোক মারপিট থানায় অভিযোগ দায়ের।

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১৭৭ বার পঠিত
প্রকাশের সময়: শনিবার, ৫ নভেম্বর, ২০২২, ৬:১০ অপরাহ্ন

অভিযোগ সুত্রে জানা যায় যে,গাইবান্ধা জেলার ব্রীজ রোড মিস্ত্রী পাড়ার মৃত জুয়েল মিয়ার ছেলে আসামি মো রবিন মিয়া একজন সন্ত্রাসী ও মাস্তান প্রকৃতির। গত ৩ রা নভেম্বর রোজ বৃহস্পতিবার ২০২২ইং তারিখে গাইবান্ধা জেলা ব্রীজ রোড মিস্ত্রী পাড়ায় সরকার কর্তৃক নির্ধারিত ১৮ টাকা কেজি মুল্যমানের আটা জনগনের কাছে বিতরনের সময় আসামি মো রবিন মিয়া জোর পুর্বক বলপ্রয়োগ এর মাধ্যমে ডিলারের কাছে থেকে ২০ কেজি আটা চায়। ২০ কেজি আটা এক জন কে দেওয়া আইন বর্হিভুত বলে ডিলার আসামিকে জানান। ডিলার আসামি মো রবিনকে ২০ কেজি আটা দিতে অস্বীকৃতি জানালে ডিলারের সঙ্গে উক্ত আসামির এক প্রকার ঝগড়া বিবাদ শুরু হয়। ঝগড়া বিবাদ চলাকালে একপর্যায়ে সচেতন নাগরিক হিসাবে মো রবিউল ইসলাম আসামি মো রবিন মিয়াকে ২০ কেজি আটা নেওয়া আইন বিরোধী বলে সুষ্ঠভাবে বোঝাবার চেষ্টা করে এবং আসামিকে নিয়ম নীতিছাড়া আটা নিতে বাধা প্রয়োগ করিলে একপর্যায়ে আসামি মো রবিন মিয়া মো রবিউল ইসলামের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে মারপিট করে। আসামি মো রবিন মিয়া রবিউল ইসলামের ডান চোখের নিচে ঘুষি মারে এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত এর মাধ্যমে জখম করে। পরবর্তীতে মো রবিউল ইসলাম এর স্ত্রী মোছা রেশমা বেগম তাহার স্বামীকে উদ্ধার করিতে আসিলে আসামি মো রবিন মিয়া মোছা রেশমা বেগমের ওপরও আক্রমন করিয়া এলোপাথারী মারপিট করে এবং আসামি মো রবিন মিয়া রেশমা বেগম কে গলাচাপিয়া ধরিয়া শ্বাসরোধ করিয়া হত্যার চেষ্টা করে। ঘটনার শোরগোল শব্দে আশেপাশের লোকজন অনেকে আগাইয়া আসিয়া আসামি মো রবিন মিয়ার হাত থেকে রবিউল ইসলাম ও রেশমা বেগম কে উদ্ধার করে। উক্ত ঘটনার শেষে আসামি মো রবিন মিয়া মো রবিউল ইসলাম ও রেশমা বেগম কে খুন, জখম করবে বলে নানা রকম হুমকি দিয়ে চলিয়া যায়। পরিশেষে মো রবিউল ইসলাম ও তার স্ত্রী মোছা রেশমা বেগম স্থানীয় দোকান হতে ঔষধ ক্রয় করে সেবন করিয়া স্থানীয় লোকজন কে সাক্ষী রেখে মো রবিউল ইসলাম বাদী হয়ে আসামি মো রবিন মিয়ার বিরুদ্ধে গাইবান্ধা সদর থানায় অভিযোগ দায়ের করে।

 Save as PDF


এ জাতীয় আরো খবর...
এক ক্লিকে বিভাগের খবর