ঘোষণা:
আমাদের ওয়েবসাইটে স্বাগতম...

গাইবান্ধায় মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে সাংবাদিকদের কলম ক্যামেরা রেখে অবস্থান কর্মসূচি

মো তানভীর রহমান / ৪১ বার পঠিত
প্রকাশের সময়: রবিবার, ১৫ জানুয়ারী, ২০২৩, ৬:৪৯ অপরাহ্ন

সংবাদ প্রকাশের জেরে অনলাইন নিউজ পোর্টাল ঢাকাপোস্টের সম্পাদক মহিউদ্দিন সরকার ও গাইবান্ধা প্রতিনিধি রিপন আকন্দের নামে হয়রানিমুলক মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে প্রেসক্লাব গাইবান্ধার আয়োজনে তৃতীয় দিনের কর্মসূচির অংশ হিসেবে কলম বিরতি, ক্যামেরা ডাউন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।রোববার (১৫ জানুয়ারি) সকাল ১১ টায় শহরের গোরস্থান মোড়ে, প্রেসক্লাব গাইবান্ধা কার্যালয়ের সামনে তিনঘন্টা ব্যাপি এই অবস্থান কর্মসূচি পপালন করা হয়। প্রেসক্লাব গাইবান্ধার সভাপতি খালেদ হোসেনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক জাভেদ হোসেনের সঞ্চালনায় চলমান প্রতিবাদ কর্মসূচিতে গাইবান্ধার পলাশবাড়ি, গোবিন্দগঞ্জ ও ফুলছড়ি উপজেলার প্রেসক্লাবসহ বেশ কয়েকটি প্রেসক্লাবের সাংবাদিক নেতৃবৃন্দরাসহ দেড় শতাধিক সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।এরআগে হয়রানিমূলক এই মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদে গত রোববার (৮জানুয়ারি) সন্ধ্যায় প্রেসক্লাব গাইবান্ধায় এক জরুরী বৈঠকে এই কলম বিরতি, ক্যামেরা ডাউন ও অবস্থান কর্মসূচি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এছাড়া বৈঠকের সিদ্ধান্ত মোতাবেক গত (১০ জানুয়ারি) জেলা শহরে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন ও (১২ জানুয়ারি) বিভাগীয় কমিশনারের কাছে স্বারকলিপি প্রদান করা হয়েছে।অবস্থান কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন প্রেসক্লাব গাইবান্ধার সভাপতি খালেদ হোসেন, সিনিয়র সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান রাজু, সহ-সভাপতি শাহজাহান সিরাজ,সহ সাংগঠনিক সম্পাদক জোবায়দুর রহমান,
ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক সালাম আশেকী, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাসান মোস্তফা জাহিদ, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক লাল চান বিশ্বাস সুমন, দৈনিক পরিবেশ পত্রিকার নাজমুল হাসান রিংকু, দৈনিক বজ্রশক্তির সোহরাব হোসেন সিলন, পলাশবাড়ি প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম রতন, পলাশবাড়ি রিপোর্টাস ইউনিটির সভাপতি আশরাফুল ইসলাম, ফুলছড়ি প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি মেহেদী হাসান বাবু, এসএ টিভির কায়ছার প্লাবন, সাংবাদিক আসাদুজ্জামান মিলন, গ্লোবাল টিভির আতিকুর রহমান আতিক বাবু, দৈনিক আমার সংবাদের সাদুল্লাপুর উপজেলা প্রতিনিধি জালাল প্রমানিক, দৈনিক আমাদের সময়ের সাদুল্লাপুর উপজেলা প্রতিনিধি শহিদুল ইসলাম, সিএনএন বাংলা টিভির ফারহান শেখ, আমাদের নতুন সময়ের রওশন হাবিব, সাপ্তাহিক অবিরাম পত্রিকার সালাউদ্দিন কাশেম প্রমুখ।এছাড়া প্রতিবাদ কর্মসূচির দুর্নীতি ও সংবাদের মূল ঘটনা তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন মামলার শিকার ঢাকাপোস্টের গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি ও প্রেসক্লাব গাইবান্ধার সাংগঠনিক সম্পাদক রিপন আকন্দ ও বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি ও প্রেসক্লাব গাইবান্ধার সিনিয়র সহ-সভাপতি রবিন সেন।এসময় অবিলম্বে এই মামলা প্রত্যাহারসহ দুর্নীতিবাজ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জোর দাবি জানিয়ে বক্তারা বলেন, জেলার প্রায় দেড় শতাধিক সাংবাদিক তাদের কলম-ক্যামেরা রেখে অনিয়মের বিরুদ্ধে, হয়রানিমুলক মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে আধা বেলার অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে। আজকে তাদের পেশাগত দায়ত্বপালনের জন্য মাঠে থাকার কথা। কর্মসূচি চলাকালীন সময়ে কোনোভাবে যদি সাংবাদিক ও সংবাদ মাধ্যম ক্ষতিগ্রস্ত হয় তবে এর দায়ভার দুর্নীতি বাজদের নিতে হবে। এছাড়া বক্তারা চেয়ারম্যানের একাধিক দুর্নীতির তুলে ধরে বলেন, চেয়ারম্যান মোসাব্বির একজন গরু চোরের গডফাদার, দীর্ঘদিন থেকেই তিনি গরু চুরির নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। তিনি ওই ইউনিয়নের সব ধরনের জুয়ার সাথে জড়িত। তিনি ২০২১ সালের একটি হত্যা মামলার জেলখাটা আসামি।অন্যদিকে, প্রেসক্লাব গাইবান্ধার সহসভাপতি রবিন সেনের নামে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমানের জামাতার মানহানির মামলারও তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানানো হয় অবস্থান কর্মসূচি থেকে। এছাড়া সেই ঘটনার তদন্ত কমিটি গঠনের দাবিও করা হয়।প্রসঙ্গত: ২০২১-২০২২ অর্থ বছরের গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণ (টিআর) সাধারণ এর দ্বিতীয় পর্যায়ের উপজেলা ভিত্তিক উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ইউনিয়নের রোস্তমের মোড়ে অবস্থিত নূরে রহমত জামে মসজিদের নামে বরাদ্দ হওয়া টিআর এর ৫৫ হাজার টাকার মধ্যে মসজিদ কমিটির হাতে মাত্র ১৪ হাজার টাকা দিয়ে বাকি ৪১ হাজার টাকা প্রকল্প সভাপতি মহিলা সদস্যর স্বামী মাহবুর রহমান, ছয় ইউপি মেম্বর ও চেয়ারম্যান মোসাব্বির ভাগবাটোয়ারা করে নেন। এছাড়া ইউনিয়নের অপর একটি প্রকল্প “জগৎরায় গোপালপুরের জাবালে রহমত জামে মসজিদের নামে বরাদ্দ দেয়া হয় ৫৭ হাজার টাকা। ইউপি চেয়ারম্যান মোসাব্বির ওই মসজিদ কমিটির সভাপতি আবুল হোসেনকে প্রকল্প সভাপতি বানিয়ে, মসজিদে ২৫ হাজার টাকা দিয়ে বাকি ৩২ হাজার টাকা একাই আত্মসাত করেন। এমন অভিযোগে গত ১৬ নভেম্বর “ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মসজিদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করে দেশ সেরা মাল্টিমিডিয়া অনলাইন নিউজ পোর্টাল “ঢাকাপোস্টডটকম”। মসজিদ সংস্কারের সরকারি অর্থ চেয়ারম্যান মোসাব্বির আত্মসাত করার বিষয়টি সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ পেলে এলাকায় বেশ চাঞ্চ্যল্যের সৃষ্টি হয়। ব্যাপকভাবে সমালোচিত হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। এমন দূর্নীতির ঘটনা ধামাচাপা দিতে গত ৮ জানয়ারি ঢাকাপোস্টের সম্পাদক মহিউদ্দিন সরকার ও গাইবান্ধা প্রতিনিধি রিপন আকন্দের নামে হয়রাণীমূলক, মিথ্যা চাঁদাবাজি ও আইসিটি আইনে মামলা করেন হত্যা মামলার জেলখাটা আসামি চেয়ারম্যান মোসাব্বির।

 Save as PDF


এ জাতীয় আরো খবর...
এক ক্লিকে বিভাগের খবর