ঘোষণা:
আমাদের ওয়েবসাইটে স্বাগতম...

বিয়ে শেষে ৫শ টাকা বাজি ধরে নদী সাঁতরে পার হওয়ার সময় নিখোঁজ বাবুলের সন্ধান মেলেনি

মো তানভীর রহমান / ৪০ বার পঠিত
প্রকাশের সময়: সোমবার, ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩, ৮:০৩ অপরাহ্ন

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে বিয়ে শেষে নৌকাযোগে বর যাত্রীর সাথে বাড়ি ফেরার পথে ৫শ টাকায় বাজি ধরে দুধকুমার নদী সাঁতরে পার হওয়ার সময় এক যুবক নিখোঁজ হয়েছে।নিখোঁজ ওই যুবকের সন্ধানে সোমবার (৬ ফেব্রুয়ারি) ভূরুঙ্গামারী থানা পুলিশ ও রংপুর ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবরি দল দিনভর উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করেও তার কোন সন্ধান পায়নি।নিখোঁজ যুবকের নাম বাবুল মিয়া (২২)। সে উপজেলার পাইকেরছড়া ইউনিয়নের মাওলানা পাড়ার আনিছ আলীর পুত্র।আর আগে গত রোববার (০৫ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে এগারটার দিকে দুধকুমার নদের শহিদুলের ঘাট এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এলাকাবাসী সুত্রে জানাগেছে, পাইকেরছড়া মাওলানা পাড়ার মোজাম্মেল হকের পুত্র হাসেম আলীর সাথে তিলাই ইউনিয়নের খোঁচা বাড়ির চর এলাকার মৃত হযরত আলী মেয়ের সাথে বিয়ে হয়। রোববার (০৫ ফেব্রুয়ারি) রাতে ফুফাতো ভাইয়ের বিয়েতে বর যাত্রী হিসেবে যায় বাবুল। রাত সাড়ে এগারটার দিকে বিয়ের অনুষ্ঠান শেষে বাড়ি ফেরার পথে নৌকা যোগে দুধকুমার নদী পাড় হওয়ার সময় বন্ধুদের সাথে নদী সাঁতরে ওপারে যাওয়ার বাজি ধরে বাবুল। ৫০০ টাকা বাজিতে মাঘের কনকনে ঠান্ডায় মাঝ নদীতে ঝাপ দেয় সে। কিছু দূর সাঁতরে যাওয়ার পর প্রচন্ড স্রোতে পানিতে তলিয়ে যায় বাবুল। পরে খবর পেয়ে ভূরুঙ্গামারী থানা পুলিশ ও রংপুর ফায়ার সার্ভিস এর একটি ডুবরি দল উদ্ধার কাজে অংশ নেয়। সন্ধ্যা পর্যন্ত দুধকুমার নদের বিভিন্ন জায়গাতে খোঁজেও বাবুল মিয়ার কোন সন্ধান পাওয়া যায় নাই।ভূরুঙ্গামারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম ঘটনার সত‍্যতা নিশ্চিত করে জানান, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস এর ডুবুরি দল যৌথভাবে উদ্ধার অভিযান অব‍্যাহত রেখেছে।নাগেশ্বরী ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মোঃ ইমন মিয়া বলেন, আমরা ৪-৫ ঘন্টা মরদেহ উদ্ধারে নদীতে সার্চ করেছি। তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। ধারনা করা হচ্ছে স্রোতে মরদেহটি দূরে কোথাও ভেসে যেতে পারে।

 Save as PDF


এ জাতীয় আরো খবর...
এক ক্লিকে বিভাগের খবর