ঘোষণা:
আমাদের ওয়েবসাইটে স্বাগতম...

লাখো মুসুল্লির আমিন আমিন ধ্বনিতে মুখোরিত গোটা ইজতেমা ময়দান||দেশ জাতি ও মুসলিম উম্মার শান্তি কামনায় দোয়া

মো তানভীর রহমান / ৪৪ বার পঠিত
প্রকাশের সময়: শনিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩, ৭:২০ অপরাহ্ন

গত ১৬ ফেব্রয়ারী বৃহস্পতিবার ফজরের নামাজের পর আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ কাটামোড়ে জেলা ইজতেমা (সাদপন্থী)।(১৮ ফেব্রয়ারি)শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার সময় শুরু হয় এ মোনাজাত। এতে উপজেলা, জেলা ও দেশী-বিদেশী লাখো মুসল্লী অংশ নেন। এ সময় দেশের কল্যাণ, মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনাসহ বিভিন্ন বিষয়ে মহান আল্লাহর কাছে দোয়া প্রার্থণা করেন মুসল্লিরা।গাইবান্ধা জেলা ইজতেমার জিম্মাদার মোখলেছুর রহমান জানান, আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেছেন বগুড়া জেলা তাবলীগ জামাতের সুরা সদস্য মাওলানা মুফতি মোঃ হাফেজ ওয়াজিবুল্লাহ। এর আগে তিনিই হেদায়েতি বয়ান করেন।এদিকে, আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে শনিবার সকাল থেকে জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ইজতেমা ময়দানে আসতে থাকেন মুসল্লিরা। এতে ইজতেমা ময়দানে লাখো মুসল্লীর ঢল নামে। গত শুক্রবার বাদ ফজর বয়ান শুরু করেন, তাবলীগ জামায়াত ঢাকা জেলার সুরা সদস্য মাওলানা আব্দুল্লাহ।স্থানীয় ভাবে জেলা ইজতেমার আখেরী মোনাজাতে অংশ নেন, গোবিন্দগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব প্রকৌশলী মনোয়ার হোসেন চৌধুরী, সাবেক সংসদ সদস্য উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ প্রধান, পৌরসভার মেয়র মুকিতুর রহমান রাফি, উপজেলা নিবার্হী অফিসার আরিফ হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মোকাদ্দেস আলী বাদু সাপমারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাকিল আকন্দ বুলবুল,উপজেলা ওয়াকার্স পার্টির সভাপতি এমএ মতিন মোল্লাসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ। এ ছাড়া জেলা ও উপজেলার সরকারী উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা এ মোনাজাতে অংশ নেন।গাইবান্ধা জেলা ইজতেমাকে ঘিরে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে নেওয়া হয়েছিলো আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থ্যা। ইজতেমা মাঠ ছিলো সিসি ক্যামেরায় আওতায়। পুলিশের কন্ট্রোলরুম থেকে সার্বক্ষনিক মনিটরিং করা হচ্ছিলো বলে জানান, গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) বুলবুল ইসলাম

 Save as PDF


এ জাতীয় আরো খবর...
এক ক্লিকে বিভাগের খবর