শিরোনাম:
শিরোনাম:
তৃতীয় দিনের ন্যায় গাইবান্ধা সদরের মোল্লারচরের বন্যাতদের মাঝে ত্রান বিতরন গাইবান্ধা সদরের দুই ইউনিয়নের বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ ও শুকনো খাবার বিতরণ গোবিন্দগঞ্জে শিশুকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলায় গ্রেপ্তার কোটা নিয়ে আপিল বিভাগে শুনানি বুধবার গাইবান্ধায় বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন ও বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরন বিজ্ঞাপনের জন্য ফি নিতে পারবে না বিআরটিএ: হাইকোর্ট নেপালে বন্যা-ভূমিধসে ১৪ জনের প্রাণহানি তিস্তা প্রকল্পে ভারত-চীন একসঙ্গে কাজ করতে রাজি: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বগুড়ায় পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু গাইবান্ধায় গৃহবধূর গোসলের ভিডিও ধারণের সময় পুলিশ সদস্য আটক
ঘোষণা:
আমাদের ওয়েবসাইটে স্বাগতম...

অনলাইন জুয়ার সঙ্গে জড়িত ৪ জন গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৪১ বার পঠিত
প্রকাশের সময়: বুধবার, ১১ অক্টোবর, ২০২৩, ৮:৫৪ অপরাহ্ন

অনলাইন জুয়ার সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, মো. মাহবুবুল আলম (৩০), লোকমান হোসেন ওরফে রায়হান (২৫), হাসিবুর রহমান (২৬) ও সুমন আলী (২৬)।বুধবার (১১ অক্টোবর) রাতে তাদের গ্রেপ্তারের বিষয়টি জানান সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজাদ রহমান।তিনি জানান, অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ওয়ানএক্স বেট নামের বেটিং সাইটসহ অন্যান্য বেশ কয়েকটি বেটিং সাইটে নিয়মিত নজর রাখছে সাইবার পুলিশ সেন্টার। এসব বেটিং সাইটে দেশের প্রচুর গ্রাহককে নিয়ে বেটিং বা জুয়া খেলা হচ্ছে।বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলের স্বল্প শিক্ষিত মানুষ এবং শিশু ও কিশোরদের মধ্যে এই প্রবণতা আশংকাজনকভাবে বাড়ছে।ওয়ানএক্স বেট, মোস্টবেট, বেট উইনার, মেলবেট অনলাইন ক্যাসিনো, লুডুসহ বিভিন্ন ফর্মেটে চলছে জুয়া খেলা। এই অনলাইন জুয়া প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে নজরদারির ধারাবাহিকতায় চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।গ্রেপ্তার হাসিবুর রহমান এবং সুমন আলীর গ্রামের বাড়ি মেহেরপুর জেলায়। ওয়ানএক্স বেটের অন্যতম একজন বাংলাদেশি এজেন্ট হচ্ছে মেহেরপুরের সাদ্দাম নামের একজন। সাদ্দামের জুয়ার এজেন্টের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য হাসিবুর ও সুমন নিয়োগপ্রাপ্ত ছিলেন।তারা মেহেরপুরসহ বিভিন্ন জেলা থেকে এমএফএস এজেন্ট সিম সংগ্রহ করে পেঁয়াজ ব্যবসায়ী পরিচয়ে ঢাকায় বসে এই কাজ করে আসছিল। পলাতক সাদ্দামসহ এই চক্রের অন্যান্য সদস্যদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। চক্রটি অনলাইন জুয়া ওয়ানএক্স বেটের মাধ্যমে প্রতিমাসে গড়ে তিন কোটি টাকা দেশের বাইরে পাচার করেছিল।সিআইডির এই কর্মকর্তা আরও জানান, গ্রেপ্তার মাহবুবুল আলম তার চাচা আনোয়ার এবং অন্যান্য প্রতিবেশীদের নামে এমএফএস এজেন্ট সিম সংগ্রহ করে অনলাইন জুয়া ওয়ানএক্স বেটের ব্যবসা পরিচালনা করছিল। এই কাজে তাকে সহায়তা করেছিল লোকমান হোসেন।কুমিল্লার মাহবুবুল আলমের চক্রটি অনলাইন জুয়া ওয়ানএক্স বেটের মাধ্যমে প্রতিমাসে গড়ে নয় কোটি টাকা দেশের বাইরে পাচার করেছে বলে জানা যায়।

 Save as PDF


এ জাতীয় আরো খবর...
এক ক্লিকে বিভাগের খবর