শিরোনাম:
শিরোনাম:
তৃতীয় দিনের ন্যায় গাইবান্ধা সদরের মোল্লারচরের বন্যাতদের মাঝে ত্রান বিতরন গাইবান্ধা সদরের দুই ইউনিয়নের বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ ও শুকনো খাবার বিতরণ গোবিন্দগঞ্জে শিশুকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলায় গ্রেপ্তার কোটা নিয়ে আপিল বিভাগে শুনানি বুধবার গাইবান্ধায় বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন ও বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরন বিজ্ঞাপনের জন্য ফি নিতে পারবে না বিআরটিএ: হাইকোর্ট নেপালে বন্যা-ভূমিধসে ১৪ জনের প্রাণহানি তিস্তা প্রকল্পে ভারত-চীন একসঙ্গে কাজ করতে রাজি: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বগুড়ায় পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু গাইবান্ধায় গৃহবধূর গোসলের ভিডিও ধারণের সময় পুলিশ সদস্য আটক
ঘোষণা:
আমাদের ওয়েবসাইটে স্বাগতম...

গাইবান্ধায় প্রতিবন্ধীদের স্বাবলম্বী করে যে স্কুল

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১৪ বার পঠিত
প্রকাশের সময়: মঙ্গলবার, ৩০ জানুয়ারী, ২০২৪, ৭:২৩ অপরাহ্ন

সামিউল ইসলাম: উত্তরের জেলা গাইবান্ধা । গাইবান্ধা সদর উপজেলার গ্রামীণ জনপদ ১নং লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের লেংগা বাজারের ৭ নং ওয়ার্ডে গড়ে ওঠা লেংগা বাজার বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিষ্টিক বিদ্যালয়টি এখন প্রতিবন্ধী পরিবারগুলোর ভরসার স্থলে পরিণত হয়েছে। ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা থেকে পরিবারের প্রতিবন্ধীদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরাতে বুকভরা আশা নিয়ে নিয়মিত তাদের স্বজনদের নিয়ে আসেন বিদ্যালয়টিতে। সেখানে পড়ালেখার পাশাপাশি বিভিন্ন অনুশীলন পরিচর্যা ও খেলাধুলায় সকাল পেরিয়ে দুপুর বিকেল পার করেন প্রতিবন্ধীরা আর তা উপভোগ ও রপ্ত করার প্রাণান্তকর চেষ্টায় থাকেন শিক্ষক ও অভিভাবকরা। ব্যক্তি উদ্যোগে ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে প্রতিষ্ঠিত হওয়া এই প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়টিতে বর্তমানে ২১৫ জন বিভিন্ন ক্যাটাগরির প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী ও ১৫ জন শিক্ষক কর্মচারী আছে। এ প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা প্রতিবন্ধীদের বিশেষ শিক্ষা, একীভূত ও সমন্বিত শিক্ষা পদ্ধতি প্রয়োগ, বিভিন্ন উপকরণের মাধ্যমে নিয়মিত কসরত ও অনুশীলনে শারীরিক ও মানসিক বিকাশ ঘটিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফেরায়। একীভূত শিক্ষায় আওতায় এখানে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ালেখা শেষে প্রাথমিক ও এসএসসি পাস করে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করে অনেকই হয়েছেন স্বাবলম্বী। তৃণমূলের প্রতিবন্ধী সদস্যদের পরিবারগুলো দরিদ্র ও অতিদরিদ্র হওয়ায় ওই ইউনিয়ন সহ বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আসেন এই প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ে। স্বাভাবিক জীবনে ফেরাতে বিদ্যালয়টি থেকে বিনা খরচে সেবা পেয়ে স্বস্তি প্রকাশ করেছেন অনেকে। ১নং লক্ষ্মীপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আবুল কালাম আজাদ মাধুকরকে জানান, ব্যক্তি উদ্যোগে এমন একটি প্রতিষ্ঠান প্রতিবন্ধীদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরানোর কাজ করছে দীর্ঘদিন ধরে। নিঃসন্দেহে এটি একটি ভালো উদ্যোগ। আমাদের বর্তমান সমাজ কল্যাণ মন্ত্রী ডা:দীপু মনি , চাঁদপুর তিন আসনের এমপি। তিনি এই প্রতিষ্ঠানটিতে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দিলে প্রতিবন্ধীদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরানোর উদ্যোগ আরও কার্যকর হবে। প্রতিষ্ঠানটির কর্নধার নির্বাহী পরিচালনা কমিটির সভাপতি জনাব মোঃ সেকেন্দার আলী মাধুকরকে জানান, তিনি তার চাকরী সমস্ত জমানো টাকা ও সময় দিয়ে ট্রেইনর হিসাবে। সেখানে বিভিন্ন কাজের পাশাপাশি প্রতিবন্ধীদের নিয়েও কাজ করতেন তিনি। সেখান থেকেই মূলত তার ইচ্ছাশক্তি কাজ করে প্রতিবন্ধীদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরাতে একটি একটি প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার। পরে বাবার একখণ্ড জমিতে গড়ে তুলেন লেংগা বাজার বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিস্টিক বিদ্যালয়। ওই প্রতিষ্ঠানটি থেকে এরই মধ্যে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছে অনেকেই। তিনি বলেন, একীভূত শিক্ষায় আওতায় এখানে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ালেখা শেষে প্রাথমিক ও এসএসসি পাশ করে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করে অনেকই হয়েছেন স্বাবলম্বী। গাইবান্ধা সদর উপজেলার সমাজসেবা অফিসার জনাব, মো.নাসির উদ্দিন শাহ্ মাধুকরকে জানান, প্রতিষ্ঠানটি প্রতিবন্ধীদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরাতে ইতিমধ্যেই এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা আর সহযোগিতা পেলে ওই প্রতিষ্ঠানটির মাধ্যমে প্রতিবন্ধীদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরানোর কাজে গতি ফিরবে। যা দেশ ও জাতিকে এগিয়ে নিতে সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করবে। এদিকে লেংগা বাজার বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিস্টিক বিদ্যালয়টি বেশ কয়েকবার পরিদর্শন প্রতিবন্ধীদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরানোর যে কর্মতৎপরতা চলছে স্বীকার করে সহযোগিতার আশ্বাস দেন সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব জনাব মোছাঃ শিরীন সুলতানা।

 Save as PDF


এ জাতীয় আরো খবর...
এক ক্লিকে বিভাগের খবর