ঘোষণা:
আমাদের ওয়েবসাইটে স্বাগতম...

গাইবান্ধায় অরিন ট্রাভেলসের সুপার ভাইজার কে মিথ্যা ভাবে ফাঁসানোর চেষ্টা এবং অর্থ দাবির অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১৫ বার পঠিত
প্রকাশের সময়: শনিবার, ২ মার্চ, ২০২৪, ৭:১৮ অপরাহ্ন

গাইবান্ধা পৌর শহরের ১ নং ওয়ার্ড ডেভিট কোম্পানী পাড়ার বাসিন্দা এবং সুনামধন্য পরিবহন অরিন ট্রাভেলস এর সুপারভাইজার মো: রাজীব হাসান (৩৫)কে মিথ্যা ভাবে ফাঁসানোর চেষ্টা এবং অর্থ দাবির অভিযোগ উঠেছে সদরের দক্ষিণ ধানঘড়া গ্রামের সরকার মো: শহিদুজ্জামানের ছেলে মো: আকতারুজ্জামান মাহিনের বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে গাইবান্ধা সদর থানায় ৩ জনের নাম উল্লেখ করে একটি লিখিত অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী মো: রাজীব হাসান। অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, গত ২৮ শে ফেব্রুয়ারী বুধবার রাত্রী আনুমানিক সাড়ে ১০ টার দিকে কল্যানপুর থেকে রাজীব তার দায়িত্বরত বাসটি নিয়ে ড্রাইভার ও হেলপার সহ গাইবান্ধার উদেশ্যে রওনা দেয়। পথিমধ্যে কল্যানপুর থেকে গাবতলী আসার সময় মাঝপথে যাত্রীদের কথা অনুযায়ী বাসের পিছনের ছিটে লোকজন বিহীন অবস্থায় একটি পরিত্যক্ত ব্যাগ পায়। তখন যাত্রীদের কে রাজীব অবগত করে ব্যাগটি সম্পর্কে। ব্যাগের কোন মালিক না থাকায় ব্যাগটি সম্পর্কে রাজীব কর্তৃপক্ষকে জানায়। তারপরেও ব্যাগটির মালিকের কোন সন্ধান না পাওয়ায় ব্যাগটি ড্রাইভারের সীটের সামনে রাখে। পরে গত ২৯ শে ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার ভোর আনুমানিক ৫ টার দিকে অরিন ট্রাভেলস পরিবহন টি গাইবান্ধা পৌর শহরের ১ নং ট্রাফিক মোড়ে পৌছালে যাত্রী আকতারুজ্জামান মাহিন বলে আমার ব্যাগ নাই। তখন সুপার ভাইজার রাজীব বলে ড্রাইবারের সীটের সামনে একটি ব্যাগ রাখা আছে দেখেন ব্যাগটি কার। পরে আকতারুজ্জামান মাহিন ব্যাগটি হাতে নিয়ে বলে ব্যাগটির ভিতরে ল্যাপটপ সহ অন্যন্য মালামাল ছিল বলে দাবি করে। এক পর্যায়ে মাহিন তার ল্যাপটবের মুল্য ১ লাখ ২০ হাজার টাকা ধরে সুপার ভাইজার রাজীব ও ড্রাইভারের কাছে থেকে অর্থ দাবি করে এবং নানা রকম হুমকি দেয় । উল্লেখ্য যাত্রী আকতারুজ্জামান মাহিন ইতিপুর্বেও হানিফ পরিবহনে নিজের মালামাল হারানোর কথা বলে অর্থ আদায় করে।

 Save as PDF


এ জাতীয় আরো খবর...
এক ক্লিকে বিভাগের খবর