ঘোষণা:
আমাদের ওয়েবসাইটে স্বাগতম...

গাঁজা কেনার জন্য ঘরের টিন বিক্রি, মাকে মারধর

নিজস্ব প্রতিবেদক / ২১ বার পঠিত
প্রকাশের সময়: বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ, ২০২৪, ১১:৩২ পূর্বাহ্ন

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে মাদকাসক্ত ছেলেকে ম্যাজিস্ট্রেটের হাতে তুলে দিলেন মা। পরে গাঁজাসহ আটক ছেলেকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে চার মাসের কারাদণ্ড দেন ম্যাজিস্ট্রেট। বুধবার (২০ মার্চ) বিকেলে শরীফপুর ১নং ওয়ার্ডে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আরিফুর রহমান। 

দণ্ডিত আনোয়ার হোসেন বেগমগঞ্জ উপজেলার শরীফপুর ১নং ওয়ার্ডের মৃত সামছল হকের ছেলে।ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, গাঁজার টাকার জন্য আনোয়ার হোসেন তার মাকে মারধর করতেন। সে ঘরের টিন বিক্রয় করে গাঁজার টাকা জোগাড় করে। ফলে ঘরটি থাকার অনুপযোগী হয়ে পড়ে। এতে তার মা বাধ্য হয়ে অন্যের ঘরে আশ্রয় নেন। ভুক্তভোগী মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার বিকেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আরিফুর রহমান হাতেনাতে আনোয়ারকে গাঁজাসহ ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে চার মাসের কারাদণ্ড প্রদান করেন। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনায় বেগমগঞ্জ মডেল থানার পুলিশ সদস্যরা সহযোগিতা করেন।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সেই মা বলেন, আমার স্বামী নেই। ছেলের অত্যাচারে আমি ঘরছাড়া। সে গাঁজার টাকার জন্য আমাকে মারধর করতো। সবশেষে টাকা না দেওয়ায় সে ঘরের টিন বিক্রি করে দিয়েছে। সেই টাকা দিয়ে গাঁজা সেবন করেছে। আমি বর্তমানে মানুষের ঘরে থাকছি। বাধ্য হয়ে প্রতিবেশীদের সহযোগিতায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আরিফুর রহমান স্যারের কাছে অভিযোগ দিয়েছি।বেগমগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আরিফুর রহমান বলেন, মাদকের ভয়াল থাবায় আজ অসহায় বিধমা মা অন্যের ঘরে বসবাস করছেন। তার সন্তান ঘরের টিন বিক্রি করে গাঁজার টাকা জোগাড় করেছে। আমি অভিযানে গিয়ে সত্যতা পাই এবং হাতেনাতে তাকে গাঁজাসহ আটক করি। ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন অনুযায়ী সন্তান আনোয়ার হোসেনকে চার মাসের কারাদণ্ড প্রদান করেছি। বেগমগঞ্জ মডেল থানার মাধ্যমে তাকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

 Save as PDF


এ জাতীয় আরো খবর...
এক ক্লিকে বিভাগের খবর