শিরোনাম:
শিরোনাম:
তৃতীয় দিনের ন্যায় গাইবান্ধা সদরের মোল্লারচরের বন্যাতদের মাঝে ত্রান বিতরন গাইবান্ধা সদরের দুই ইউনিয়নের বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ ও শুকনো খাবার বিতরণ গোবিন্দগঞ্জে শিশুকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলায় গ্রেপ্তার কোটা নিয়ে আপিল বিভাগে শুনানি বুধবার গাইবান্ধায় বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন ও বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরন বিজ্ঞাপনের জন্য ফি নিতে পারবে না বিআরটিএ: হাইকোর্ট নেপালে বন্যা-ভূমিধসে ১৪ জনের প্রাণহানি তিস্তা প্রকল্পে ভারত-চীন একসঙ্গে কাজ করতে রাজি: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বগুড়ায় পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু গাইবান্ধায় গৃহবধূর গোসলের ভিডিও ধারণের সময় পুলিশ সদস্য আটক
ঘোষণা:
আমাদের ওয়েবসাইটে স্বাগতম...

আজ রানা প্লাজা ধসের ১১ বছর

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১৩ বার পঠিত
প্রকাশের সময়: বুধবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২৪, ১০:৫২ পূর্বাহ্ন

এ ঘটনায় সরকারী হিসাবে, এক হাজার ১৩৬ জন শ্রমিক নিহত হয়েছে। দুই হাজার ৪৩৮ জনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

সাভার বাস স্ট্যান্ডের রানা প্লাজা ধসের ১১ বছর পূর্তি আজ। ২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল ঘটে যাওয়া এ ঘটনাটি সারাবিশ্বে সবচাইতে বড় শ্রমিক দুর্ঘটনা। এতে যারা বেঁচে আছেন, তারা বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত এবং আর্থিকভাবে ভালো নেই অভিযোগ আহত শ্রমিকদের।

ভয়াবহ এ ঘটনায় সরকারী হিসাবে, এক হাজার ১৩৬ জন শ্রমিক নিহত হয়েছে। দুই হাজার ৪৩৮ জনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

অভিশপ্ত এই ভবনের প্রথম ও দ্বিতীয় তলায় একটি ব্যাংক, ইলেকট্রনিক, কম্পিউটার, প্রসাধন সামগ্রীও পোশাকের দোকানের পাশাপাশি তৃতীয় তলা থেকে অষ্টমতলা পর্যন্ত নিউ ওয়েব বটম্স, নিউ ওয়েব স্টাইল, প্যান্টম্স এ্যাপারেল্স, প্যান্টম টেক ও ইথারটেক্স লিমিটেডসহ পাঁচটি গামের্ন্টস ছিল।

দুর্ঘটনায় আহত শ্রমিকরা কেউ কেউ ছোট পরিসরে বিভিন্ন ব্যবসা আবার অনেকে শরীরের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ হারিয়ে এখন সারাজীবনের জন্য পঙ্গু হয়ে বেকার জীবন যাপন করছেন। তাদের অভিযোগ, সারা বছর কেউ তাদের কোনো খোজখবর নেয়নি। দিবসটি এলেই অনেকে আমাদের মোবাইল ফোনসহ বিভিন্নভাবে যোগাযোগ করে- এইটুকুই।শ্রমিক সংগঠনের কর্মসূচি : এদিকে শ্রমিক সংগঠনের পক্ষ থেকে বলা হয়, দিবসের দিন সকাল থেকে ৬০/৭০টি শ্রমিক সংগঠন সকাল ৮টা থেকে রানা প্লাজার সামনে অস্থায়ী বেদীতে পুস্পস্তবক অর্পণ, আলোচনা সভা, মানববন্ধন, র‌্যালী ও বিক্ষোভসহ নানা কর্মসূচি পালন করবে। তাদের দাবি, রানা প্লাজার জায়গা ও সম্পদ বাজেয়াপ্ত করে আহত, নিহত শ্রমিকদের পরিবারকে পুর্নবাসন, আহতদের সু-চিকিৎসা, সোহেল রানাসহ দায়ী ব্যক্তিদের সর্ব্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা, ২৪ এপ্রিলকে জাতীয় শোক দিবস ঘোষনা, রানা প্লাজার সামনে স্মৃতিস্মম্ভ নির্মাণ করা, শ্রমিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত, শ্রমিকদের এক জীবনের আয়ের ক্ষতিপূরণসহ বিভিন্ন দাবি জানান ।

মামলার দ্রুত নিস্পতির দাবি : জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের মামলায় রানা প্লাজার মালিক সোহেল রানার বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) মামলাসহ সকল মামলার দ্রুত নিস্পতির দাবি করা হয়।

একটি সূত্র জানায়, সোহেল রানার বিরুদ্ধে আরো চারটি মামলা বিচারাধীন। এ সব মামলায় তিনি কারাগারে আছেন। একবার জামিন হলেও তা পরবর্তীতে তা বাতিল করা হয়। ২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল রানা প্লাজা ধসে পড়লে ওই বছরই ২৯ এপ্রিল বেনাপোলে র‌্যাবের হাতে সে গ্রেফতার হলে বর্তমানে তিনি কারাগারে রয়েছে।

বাংলাদেশ গামের্ন্টস অ্যান্ড শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটি সভাপতি রফিকুল সুজন বলেন, রানা প্লাজার ১১ বৎসরে কোনো মামলার এখনো নিম্পত্তি হয়নি। তিনি সোহেল রানাসহ দায়ীদের সর্বোচ্চ শাস্তিসহ সব মামলা দ্রুত নিম্পত্তি দাবি করেন।

 Save as PDF


এ জাতীয় আরো খবর...
এক ক্লিকে বিভাগের খবর