শিরোনাম:
শিরোনাম:
তৃতীয় দিনের ন্যায় গাইবান্ধা সদরের মোল্লারচরের বন্যাতদের মাঝে ত্রান বিতরন গাইবান্ধা সদরের দুই ইউনিয়নের বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ ও শুকনো খাবার বিতরণ গোবিন্দগঞ্জে শিশুকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলায় গ্রেপ্তার কোটা নিয়ে আপিল বিভাগে শুনানি বুধবার গাইবান্ধায় বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন ও বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরন বিজ্ঞাপনের জন্য ফি নিতে পারবে না বিআরটিএ: হাইকোর্ট নেপালে বন্যা-ভূমিধসে ১৪ জনের প্রাণহানি তিস্তা প্রকল্পে ভারত-চীন একসঙ্গে কাজ করতে রাজি: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বগুড়ায় পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু গাইবান্ধায় গৃহবধূর গোসলের ভিডিও ধারণের সময় পুলিশ সদস্য আটক
ঘোষণা:
আমাদের ওয়েবসাইটে স্বাগতম...

গাইবান্ধায় জোর পুর্বক বসতবাড়ী দখলের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

নিজস্ব প্রতিবেদক / ২৮ বার পঠিত
প্রকাশের সময়: বুধবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২৪, ৮:৩৮ অপরাহ্ন

গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলায় জোরপূর্বক বসতবাড়ী দখলের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভোগী আকতারুল ইসলাম নান্নু (৫৪) ও তার পরিবার। বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় দিকে পৌর শহরের সমবায় মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে আব্দুল্লাহপাড়া গ্রামের ৮ শতাংশ জমি দখলদার থেকে রক্ষা ও সুষ্ঠু বিচারে দাবি জানান ভুক্তভোগী আকতারুল ইসলাম নান্নু । তিনি  বলেন, আমি একজন কৃষক । কৃষি কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছি ।আমি আমার মা, সন্তান, স্ত্রী সহ পরিবারের ৯ জন সদস্য খুব কষ্টে পরিবার নিয়ে জীবনযাপন করে আসছি । আমি পৈত্রিক সুত্রে ৬ শতক জমির মালিক হই । অপরদিকে কৃষি কাজ করে অর্থ জমিয়ে ২ শতক জমি ক্রয় করি । পরিবারের সদস্য সংখ্যা বেশি হওয়ায় জীবিকার তাগিতে পরিবার নিয়ে কর্মের জন্য ঢাকা যাই । কয়েক বছর ঢাকায় থেকে গত ৯ অক্টোবর ২০২৩ ইং তারিখে নিজ বাড়িতে এসে প্রবেশ করলে প্রতিপক্ষগণ মৃত আবু জালালের পুত্র রাহেল মিয়া, হাবিব মিয়া, হারুন মিয়া, সাঈদ মিয়া গং পুব শত্রুতার জের ধরে পরিকল্পিতভাবে তার দলবল নিয়ে আমার বাড়িতে প্রবেশ করে আমাকে সহ আমার পরিবারের লোকজনদের কে বিভিন্ন ভাষায় অকথ্য গালিগালাজ করে বসতবাড়ী ছেড়ে দিতে বলে । আমার অসুস্থ স্ত্রী মুন্নি বেগম ও বয়স্কা মা আমেনা বেওয়া বাধা দিতে গেলে আমার মা ও স্ত্রী কে মারধর করে ও বসতবাড়ী ভাংচুর করে । আমি তাদের চিৎকার শুনে আগাইতে গেলে আমাকেও বেধরক মারপিট করে । পরবর্তীতে আমি জুরুরী সেবা ৯৯৯ এ ফোন করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ত্রন করে । আমি আমার মা ও স্ত্রী কে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করাই এবং সাঘাটা থানায় একটি লিখিতি অভিযোগ দায়ের করি । এ বিষয়ে কোন সঠিক বিচার পাই নাই । আমি আমার পরিবারের ৯ জন সদস্য সহ মানবেতর জীবন যাপন করতেছি ।বতমানে অন্যের বাড়িতে গিয়ে অবস্থান করতেছি । এ বিষয়ে পুলিশ সুপার মহোদয়, জেলা প্রশাসক, সাঘাটা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয়ের সহযোগীতা কামনা করছি । আমি যেন আমার পৈত্রিক বসতবাড়ীর জমিতে পরিবার নিয়ে শান্তিতে বসবাস করতে পারি । সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ ।

 Save as PDF


এ জাতীয় আরো খবর...
এক ক্লিকে বিভাগের খবর